বটিয়াঘাটায় গৃহবধূ হত্যা মামলার ৪ আসামি রামপালে গ্রেফতার

খুলনা বটিয়াঘাটায় চাঞ্চল্যকর গৃহবধূ হত্যা মামলার ৪ আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬ ।
শুক্রবার র‌্যাব-৬ প্রেরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, র‌্যাব-৬ (সদর কোম্পানি) খুলনার একটি আভিযানিক দল বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে উক্ত হত্যা মামলার এজাহারনামীয় ১নং আসামি মোঃ হেমায়েত আকুঞ্জি (৫৫), ২নং আসামি রোকেয়া বেগম (৪৫), ৪নং আসামি মোঃ ইমরান আকুঞ্জি (২৭) ও এবং ৬নং আসামি মোসাঃ আসমা বেগমকে (৩০) বাগেরহাট জেলার রামপাল থানার বুজবুনিয়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিগণ হত্যার সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করে। পরে গ্রেফতারকৃতদের বটিয়াঘাটা থানায় হস্তান্তর করা হয়।

ঘটনা বিবরণে জানা যায়, ভিকটিম এবং বিবাদীরা একই পরিবারের সদস্য। ভিকটিম সালমা বেগম সঙ্গে আসামিদের পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। গত ২৬ অক্টোবর দুপুর সময় সালমা বেগম মেঝ মেয়ে মাদ্রাসা থেকে বাড়ি আসার পথে আসামি মোসাঃ ফাতেমা ভিকটিমের মেয়ে লামিয়াকে এলোপাতাড়িভাবে কিল, চড়, ঘুষি মারে। এরপর লামিয়া বাড়ি এসে ভিকটিমকে ঘটনার বিষয় খুলে বলে। তাৎক্ষণিকভাবে একই দিন দুপুরে ভিকটিম সালমা বেগম আসামি ফাতেমার নিকট  মারপিট করার কারণ জিজ্ঞাসা করলে তারা তাকে উদ্দেশ্য করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। ওই সময় হেমায়েত আকুঞ্জি ও আলাউদ্দিন সরদার কথা কাটাকাটির এক পর্যায় ভিকটিমের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এরপর সকলে মিলে ভিকটিম সালমা বেগমকে এলোপাতাড়িভাবে নাক, মুখ, বুকসহ সমস্ত শরীরের বিভিন্ন স্থানে চড়, কিল, ঘুষি মেরে বেদনাদায়ক ফোলা জখম করে। গত ৩ নভেম্বর চিকিৎসার জন্য প্রথমে রূপসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে যায়। পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করে। পরবর্তীতে ভিকটিমের বড় মেয়ে বাদী হয়ে বটিয়াঘাটা থানায় উক্ত হত্যার সাথে জড়িত আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপি বা সিলেক্ট করা যাবে না।