বাগেরহাটে ভ্যান চালক হত্যা মামলায় ২ যুবকের যাবজ্জীবন

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ভ্যান চালক মোঃ ওবায়দুল সিকদারকে (৩০) গলাকেটে হত্যার দায়ে দুই যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সাথে তাদের দশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো তিন মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে চারটায় বাগেরহাট জেলা ও দায়রা জজ মোঃ রবিউল ইসলাম আসামিদের অনুপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন। অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় এই মামলার অপর দুই আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত।
ভ্যান চালক ওবায়দুল সিকদার হত্যার সাত বছর পর এই রায় দিল আদালত। নিহত মোঃ ওবায়দুল সিকদার জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলার কড়াবৌলা গ্রামের জহর সিকদারের ছেলে। দণ্ডাদেশ প্রাপ্তরা হলেন, মোরেলগঞ্জ উপজেলার মোহনপুর গ্রামের মুনসুর শেখের ছেলে ইমরান শেখ (২৭) এবং একই গ্রামের বাবুল সিকদারের ছেলে ইব্রাহিম সিকদার (৩০)। খালাসপ্রাপ্তরা হলেন, ইমরুল শেখ ও উজ্জ্বল।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোহম্মদ আলী বলেন, ২০১৬ সালের ৩০ এপ্রিল মোরেলগঞ্জ উপজেলার কড়াবৌলা গ্রামের ভ্যান চালক ওবায়দুল সিকদার রোজগারের জন্য বাড়ি থেকে বের হন। ওইদিন থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। এক সপ্তাহ পর ৬ মে পার্শ্ববর্তী দাসখালী গ্রামের মনির সরদারের বাগান থেকে ওবায়দুলের গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওইদিন নিহতের বাবা জহর সিকদার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি করে মোরেলগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। সিআইডি’র পরিদর্শক কানাই লাল মজুমদার তদন্তে নেমে ইমরান শেখকে গ্রেফতার করলে সে ওবায়দুলের ভ্যানটি ছিনতাই করতে তাকে হত্যার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক কানাই লাল মজুমদার মামলার দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০২২ সালের ২৭ আগস্ট ইমরান, ইব্রাহিম, ইমরুল ও উজ্জ্বলের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালতের বিচারক ১৩ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে দুইজনকে যাবজ্জীবন ও দুইজনকে খালাস দিয়ে এই রায় ঘোষণা করেন। আসামিপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন আইনজীবী সাহা অসীম কুমার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপি বা সিলেক্ট করা যাবে না।